স্বামীকে আটকে স্ত্রীকে ধর্ষণ, আটক ৬

0

স্বামীকে আটকে স্ত্রীকে ধর্ষণ, আটক ৬

নেত্রকোনা থেকে[][] স্ত্রী টয়লেটে ঢোকার পর স্বামীকে হোটেলে আটকে ছয় যুবক এক তরুণীকে ধর্ষণ করেছে। তাদের বহনকারী বাসের যাত্রাবিরতিতে এমন ঘটনায় এই দম্পত্তির ঈদ আনন্দ বিষাদে পরিণত হয়েছে।
শনিবার (১০ অগাস্ট) ভোরে নেত্রকোনার চল্লিশা এলাকায় এ ঘটনার পর ধর্ষণে জড়িত চারজন পুলিশের হাতে গ্রেপ্তার হয়েছে।
অভিযুক্তরা হলো- ফিরোজ আলী মেম্বারের ছেলে এনামুল হক সম্রাট (২৭), একই এলাকার কালা মিয়ার ছেলে জিহান (২৭), শামছুল হকের ছেলে রাসেল (৩০), মজলিস উদ্দিনের ছেলে বাশার (২৭), জামাল উদ্দিনের ছেলে রেজাউল করিম পাভেল (২৮) ও শামছুল ইসলামের ছেলে সাইদুল ইসলাম (৩০)।

এদের মধ্যে সাইদুল, পাভেল, বাশার ও সম্রাট গ্রেপ্তারের পর পুলিশের কাছে ধর্ষণের কথা স্বীকার করেছে।
পুলিশের ভাষ্য, ওই তরুণী ঢাকা থেকে স্বামীর গ্রামের বাড়ি নেত্রকোনার কলমাকান্দা উপজেলায় যাচ্ছিলেন ঈদ করতে। তার স্বামী ঢাকার একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে চাকরি করেন।
তাদের বহনকারী বাসটি চল্লিশা এলাকার সারিন্দা হোটেলে যাত্রাবিরতি করলে ওই তরুণী যান টয়লেটে। তখন অভিযুক্তরা বিভক্ত হয়ে তরুণীর স্বামীকে সারিন্দা হোটেলের একটি কক্ষে আটকে রাখে। আর তরুণী যে টয়লেটে ঢুকেছে এর সামনে ওতপাতে কয়েকজন। টয়লেট থেকে বের হলে সারিন্দা হোটেলের ম্যানেজার সম্রাটের নির্দেশে তরুণীর মুখ চেপে হোটেলের গোপন কক্ষে নিয়ে যায় পাঁচ যুবক। সেখানে তাকে পালাক্রমে ধর্ষণ করে ছয়জন।
নেত্রকোনার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এসএম আশরাফুল আলম জানিয়েছেন, ধর্ষণের ঘটনায় চয়জনের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। ওই তরুণীর স্বাস্থ্য পরীক্ষা করতে তাকে নেত্রকোনা আধুনিক সদর হাসপাতালে পাঠনো হয়েছে।

Share.

About Author

Leave A Reply