উজিরপুরে স্কুল পিয়নের ছাত্রীকে যৌন হয়রানি ও ধর্ষণ চেষ্টার ঘটনা চাপা দিতে প্রধান শিক্ষকের দৌড়ঝাঁপ (!)

0

উজিরপুরে স্কুল পিয়নের ছাত্রীকে যৌন হয়রানি ও ধর্ষণ চেষ্টার ঘটনা চাপা দিতে প্রধান শিক্ষকের দৌড়ঝাঁপ (!)

স্টাফ রিপোর্টার **উজিরপুরে স্কুল পিয়নের ছাত্রীকে যৌন হয়রানি ও ধর্ষণ চেষ্টার ঘটনা চাপা দিতে প্রধান শিক্ষকের দৌড়ঝাঁপ শুরু করেছেন। ভুক্তভোগী সীমার মা বিষয়টি ধামাচাপা দিতে ১ লক্ষ টাকা পেয়েছেন বলে অভিযোগ এর ভিত্তিতে সরজমিনে গেলে সীমার বাবা ও মা জানান বিষয়টি প্রধান শিক্ষক হালিম ও স্কুলের সভাপতি আফজাল মল্লিক সালিশ করে দিয়েছেন। তবে টাকা লেনদেনের বিষয়টি চেপে যায়। তারা আরো জানান এসব আয়োজনে প্রধান শিক্ষক সাহায্য করেছেন।
উল্লেখ্য যে, বরিশালের উজিরপুরের জল্লা ইউনিয়ন এর কাজিশাহ প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পিয়ন শাহিন কতৃক ৩য় শ্রেণির ছাত্রী সিমা আক্তারকে( একই স্কুলের তৃতীয় শ্রেনীর ছাত্রী) ২১ তারিখ শনিবার স্কুলের লাইব্রেরীতে থাকাকালে ধর্ষণ চেস্টা ও যৌন হয়রানির অভিযোগ উঠে। বিষয়টি জানাজানি হলে সোমবার সকালে এলাকাবাসী বিদ্যালয়ের লাইব্রেরিতে প্রধান শিক্ষক হালিম কে অবরুদ্ধ করে জানতে চায় ধর্ষণ সমন্ধে জানতে চায় । কিন্তু প্রধান শিক্ষক হালিম কিছু না জানার ভান করে বিসয়টি এড়িয়ে যায়। সূক্রে জানা যায় পিয়ন শাহিনকে প্রধান শিক্ষক পালিয়ে যেতে সাহায্য করে, তাই এলাকাবাসী ক্ষোভে ফেটে পড়ে এবং শাহিনের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ মিছিল করে। এলাকাবাসী আরও জানায় শাহিন বিদ্যালয়ে বসে মাদক ব্যাবসা পরিচালনা করত। এবং এর আগেও শাহিনের বিরুদ্ধে আরও অপরাধের অভিযোগ আছে।তবে নির্যাতিত মেয়ের পরিবার আইনি সহায়তার দাবি করেন এবং প্রধান শিক্ষকের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন।

এ বিষয়ে অভিযুক্ত পিয়ন আত্মগোপনে চলে গেলে তার বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি।
পলায়নে সাহায্যকারী প্রধান শিক্ষক মো. হালিম এ বিষয়ে তেমন কিছু জানেন না বলে প্রাথমিকভাবে সংবাদকর্মীদের জানান। এবং পুনঃরায় বলেন বিষয়টি সংশ্লিষ্ট শিক্ষা বিষয়ক কর্মকর্তা তদন্ত করছেন।

সংশ্লিষ্ট উজিরপুর থানা কতৃপক্ষ জানায়, ” বিষয়টি মিমাংসার কথা আমাদের জানা নেই। আমরা দেখবো বিষয়টি “

Share.

About Author

Leave A Reply