প্রথম শ্রেনীর শিশুকে যৌন নিপীড়নের অভিযোগে থানায় মামলা

0

প্রথম শ্রেনীর শিশুকে যৌন নিপীড়নের অভিযোগে থানায় মামলা

স্টাফ রিপোর্টার [][] নগরীর শাহ্ পরান সড়কের সাবেক ডিআইজি কার্যালয়ের কর্মচারী হারুন-অর-রশিদ বালির বিরুদ্ধে প্রথম শ্রেনীর স্কুল ছাত্রী আসমা( ছদ্মনাম)সহ চারটি শিশুকে বিভিন্ন সময়ে যৌন নিপীড়নের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় বিমানবন্দর থানায় একটি মামলা দায়ের হয়েছে।

অভিযোগকারী লাইজু অভিযোগ করে বলেন ‘ আমার নাবালক শিশুকে বাড়ির চারতলায় লজেন্সের লোভ দেখিয়ে ডেকে নিয়ে যৌন নিপীড়ন করেন অভিযুক্ত হারুন অর রশিদ বালি। এরকম বেশ কয়েকবার সবার অজান্তে এ কুকর্ম করেছেন এই ষাটোর্ধ বৃদ্ধ। ঘটনার দিন আমার ছেলে গিয়ে দেখে ফেলায় আমার মেয়ে সিমরানকে ছেড়ে দেয় অভিযুক্ত। তবে বিষয়টি জানাজানি হলে বিমানবন্দর থানায় রাতে গেলে অভিযোগ নিতে গরি মিশি করে থানা কতৃপক্ষ। এরপর এক পর্যায় একজন নারী পুলিশ সদস্য ভিকটিমকে প্রাথমিক শারীরিক পরিক্ষা করে বলেন বাচ্চাটির শরীরের গোপনীয় অংশে ক্ষত দেখা গেছে। কিন্তু মামলা রাতে হয়নি। ‘

সূত্রমতে, অভিযুক্ত ব্যক্তির নিকট আত্মীয় স্বজন বিভিন্ন প্রভাবশালী লোকজন হওয়ায় মামলা না নিতে পুলিশকে চাপ দেয়া হচ্ছে। এমনকি পুরো বিষয়টি ধামাচাপা দিতে স্থানীয় একটি কুচক্রী মহল ও অভিযুক্ত’র স্বজনরা দৌড়ঝাঁপ শুরু করেছেন আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর বিভিন্ন উর্ধতন কর্মকর্তার বাড়িতে।

আরেকজন অভিযোগকারী রেবা বলেন ‘ অভিযুক্ত মুরব্বি ইতিপূর্বেও এমন অভিযুক্ত হয়েছেন বহুবার। তার এমন কুকর্মের প্রতিবাদে ভয় পায় লোকজন। কারন তার আত্মীয় স্বজন বড়বড় পদে আছেন। আমার নিজের বাচ্চাকেও একইভাবে যৌন নিপীড়ন করেছেন। আমরা এর সুষ্ঠু তদন্তের পর কোর্টের মাধ্যমে বিচার চাই। ‘

এদিকে, ষাটোর্ধ এ বয়স্ক অভিযুক্ত হারুন অর রশিদ শারীরিকভাবে অসুস্থ ও দুর্বল বলে জানিয়েছেন তার পরিবার থেকে।

বিমানবন্দর থানা অফিসার ইনচার্জ জাহিদ বিন আলম বলেন ‘ অভিযোগের প্রেক্ষিতে ৫ জানুয়ারি এ ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে। শিশু তার পরিবারের কাছে রয়েছে। বিষয়টি এখন তদন্ত করা হচ্ছে। ‘

Share.

About Author

Leave A Reply