নগরবাসীর নজর কেড়েছে ই-সপ বরিশাল।

0

নগরবাসীর নজর কেড়েছে ই-সপ বরিশাল।

আমিনুর রহমান শামীম ||করোনা মহামারিতে অন্যান্য দেশের মত বাংলাদেশের মানুষও ভাইরাসের সংক্রমণ থেকে রেহাই পেতে গৃহবন্দী। সামাজিক দূরত্ব ও সচেতনতার কারণে পরিবারের অনেক নিত্যপ্রয়োজনীয় সামগ্রীই ইচ্ছা স্বত্বেও সংগ্রহ করতে পারছেন না। এরই ধারাবাহিকতায় বরিশালে ব্যক্তিগত উদ্যোগে চালু হয়েছে অনলাইন বাজার। এর নাম দেয়া হয়েছে “ই-সপ বরিশাল।”

ই-সপ বরিশালের স্লোগান হচ্ছে, করোনা প্রতিরোধে সামাজিক দুরত্ব বজায় রাখুন, ঘরে থাকুন। চাষিদের বাঁচাতে তাদের উৎপাদিত পন্য সরাসরি জমি, খামার কিংবা পুকুর থেকে শহরের ঘরে ঘরে ন্যায্যমূল্যে পৌঁছে দেয়াই ই-সপের লক্ষ্য।

ইতিমধ্যে বরিশাল মহানগরীতে ই- সপের কর্মকাণ্ডে মানুষের মধ্যে ব্যাপক সাড়া মিলেছে। জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে বরিশালের অনলাইন বাজার ই-সপ বরিশাল। চাল, ডাল, তেল, আটা, ময়দা, বিস্কুট, চা, কাঁচা বাজার, মাছ, মাংস, দুধ, ডিম, নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য, বেবি ফুড, গ্যাস সিলিন্ডার সহ ইত্যাদি নিত্যনতুন পণ্যসামগ্রী যা নিজস্ব পরিবহণে ২ ঘন্টার মধ্যে হোম ডেলিভারি দিয়ে সুনাম অর্জন করেছে।

ই- সপের স্বত্বাধিকারী মোঃ রিফাত ইমরান ( মোবাইল ০১৭৯১৮৮৮০৮১) এর https://m.facebook.com/eshopbarishal/ পেজটিতে পণ্যসামগ্রী ও মূল্য তালিকা বাজার মূল্যেই রয়েছে।

তিনি জানান, এই করোনা মূহুর্তে দেশ যখন লকডাউন থাকছে, মানুষ যখন ঝুঁকির মধ্যে বাজার করতে যাচ্ছে; ঠিক সেই মূহুর্তে বাড়িতে বসে অর্ডার করার ২-৩ ঘন্টায় মধ্যেই ই-সপের কর্মীরা নিজেরা সুরক্ষিত থেকে, নিজস্ব পরিবহনে স্বাস্থ্যসম্মত ও সতেজ খাদ্য কিংবা পণ্যটি পৌঁছে দিচ্ছে গ্রাহকের দরজায় ।

তিনি আরও জানান, পণ্যটি সম্পূর্ণ ফ্রিতে ক্রেতার বাড়িতে পৌছে দিচ্ছি ।এবং সর্বোচ্চ কম দামে এই পণ্যগুলো ক্রেতার দ্বারে বিক্রয় করছি । ই-সপ বরিশালে প্রয়োজনীয় বাজারের কথা জানানো মাত্র সেই বাসায় চলে যাবে বাজার।
তিনি আরো জানান প্রতিদিন বিভিন্ন মহল্লায় চলে যাবে ই-সপের নিজস্ব পরিবহন । এক থেকে দুই ঘন্টা অবস্থান করে মাইকে আহ্বান জানানো হবে । ক্রেতারা যার যা প্রয়োজন ন্যায্যমূল্যে ও বাজার থেকে কম মুল্যে কিনবেন নানা রকম সবজি, মাছ, মাংস। করোনা সংক্রমণরোধে মানুষকে ঘরে রাখার জন্যই এই উদ্যোগ নিয়ে করোনা যুদ্ধে অংশ গ্রহণ করেছে ই-সপ বরিশাল।

Share.

About Author

Leave A Reply