পটুয়াখালীর কুখ্যাত কিশোর গ্যাং এর চারজন র্যাবের হাতে আটক।

0

পটুয়াখালীর কুখ্যাত কিশোর গ্যাং এর চারজন র্যাবের হাতে আটক।

নাগরিক ডেস্ক ★★র্যাব ৮ পটুয়াখালীর ভাইরাল হওয়া চাঞ্চল্যকর কিশোর গ্যাং চক্রের চারজন সদস্যকে আটকে সক্ষম হয়। আজ দৈনিক নাগরিক এ এ সংক্রান্ত এক এক প্রেস রিলিজে পাওয়া তথ্য অনুযায়ী ‘ র্যাব-৮ কর্তৃক পটুয়াখালীর ভাইরাল হওয়া চাঞ্চল্যকর কিশোর গ্যাং চক্রের ০৪ (চার) সদস্য আটক, হামলায় ব্যবহৃত দেশীয় ধারালো অস্ত্র উদ্ধার।

প্রতিষ্ঠান লগ্ন থেকে ডাকাত, সন্ত্রাসী, চাদাবাজ, জঙ্গি দমন, অবৈধ অস্ত্র উদ্ধার, মাদক ব্যবসায়ী, প্রতারক চক্র, হত্যা মামলার আসামী সহ বিভিন্ন অপরাধীদের গ্রেফতারে অগ্রানী ভূমিকা পালন করে আসাছে। গোয়েন্দ নজরদারি ও আভিযানিক কার্যক্রমে ধারাবাহিকতায় এধরনের অপরাধ নিয়ন্ত্রনে র্যা ব ইতিমধ্যেই বিশেষ সফলতা অর্জনে সক্ষম হয়েছে।
বিভিন্ন গোয়েন্দা তথ্য এবং স্থানীয় সংবাদ মাধ্যম সুত্রে জানাযায় যে, পটুয়াখালী শহরে কিশোর গ্যাং চক্র সক্রিয়। এরা বিভিন্ন সময়ে মারপিট, ছিনতাই, ইভটিজিং, গ্যাং কালচারের মত বিভিন্ন অপরাধ সংঘটিত করে আসছে। সম্প্রতি চক্রটি পটুয়াখালী সদরের দুই জন ছাত্র মোঃ এনামুল হক মুন্না ও নিবির দাস গুপ্তকে প্রকাশ্য দিবালোকে কুপিয়ে ও পিটিয়ে গুরুতর ভাবে জখম করে যার একটি ভিডিও ক্লিপ ভাইরাল হয় এবং দৈনিক পত্র পত্রিকায় সংবাদটি বহুপ্রকাশিত হয় এ বিষয়ে পটুয়াখালী সদর থানায় একটি মামলা রুজু হয়।

র‍্যাব-৮, সিপিসি-১, (পটুয়াখালী ক্যাম্প) এ সংক্রান্তে ছায়া তদন্ত অব্যাহত রাখে। এরই ধারাবাহিকতায় র‍্যাব-৮, সিপিসি-১(পটুয়াখালী ক্যাম্প) গোয়েন্দা তথ্য ও প্রযুক্তির সহায়তায় কিশোর গ্যাং চক্রের বিরুদ্ধে অভিযানে নামে এবং গত ২৬ জুলাই ২০২০ তারিখ রাতে অভিযান চালিয়ে ঢাকা যাওয়ার প্রাক্কালে বরিশাল লঞ্চঘাট এলাকা থেকে কিশোর গ্যাং চক্রের ০৩ সদস্যকে গ্রেফতার করে। জিজ্ঞাসাবাদে তারা তাদের নাম (১) মোঃ সিফাত(২২), পিতা-মশিয়ার রহমান কিসলু, সাং-সদর রোড সংলগ্ন শিশু পার্ক, থানা- সদর, জেলা- পটুয়াখালী, (২) মোঃ আরমান (২৪), পিতা- সাজু সিকদার, সাং- শিমুলবাগ, থানা- সদর, জেলা- পটুয়াখালী, (৩) মোঃ রিজন(২২), পিতা-মোঃ খলিলুর রহমান, সাং-সবুজবাগ ১ম লেন, থানা-সদর, জেলা-পটুয়াখালী বলে জানায়। পরবর্তীতে তাদের নিয়ে অভিযান চালিয়ে অপর আসামী মোঃ সাইদুর রহমান (২২), পিতা- মোঃ আঃ রাজ্জাক, সাং-পুরান বাজার (চকবাজার), থানা-সদর,জেলা- পটুয়াখালী এর বাড়ি থেকে উক্ত হামলায় ব্যবহৃত ০২ টি রামদা, ০১ টি ধারালো ছুরি ও ০১ টি লোহার রড উদ্ধার করা হয়। পরবর্তীতে তাদেরকে যথাযথ প্রক্রিয়ায় পটুয়াখালী সদর থানায় হস্তান্তর এবং এ সংক্রান্তে পটুয়াখালী সদর থানায় অস্ত্র আইনে মামলা দায়ের প্রক্রিয়া চলমান।

এ ঘটনার সাথে সংশ্লিষ্ট অন্যান্য আসামীদের গ্রেফতারে র‍্যাব-৮ সচেষ্ট আছে এবং র‍র্যাব-৮ এর এধরনের কার্যক্রমে ভবিষ্যতে অব্যাহত থাকবে। ‘
আটকের পর থেকে জনমনে স্বস্তি ফিরে এসেছে বলে জানিয়েছেন এলাকাবাসী।

Share.

About Author

Leave A Reply